সাংবাদিক নদী হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামী কারাগারে, ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন…

পাবনা প্রতিনিধিঃ পাবনার সাংবাদিক সুবর্না আক্তার নদী হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত ৩ নম্বর আসামী শামসুজ্জামান মিলন (৪২) কে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। পাবনার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রেজাউল করিমের আদালতে সোমবার দুপুরে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হত্যা মামলার তদন্তের স্বার্থে আসামী মিলনের সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

আদালতের বিজ্ঞ বিচারক রিমান্ডের শুনানী দিন পরবর্তীতে ধার্য্য করা হবে বলে জানান। সেইসাথে আসামী মিলন কে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এর আগে গত শনিবার (০৮ আগস্ট) রাতে ঢাকার আরমানিটোলা এলাকার এক আত্মীয়ের বাসা থেকে মিলনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১২ পাবনা ক্যাম্পের সদস্যরা।
উল্লেখ্য, গত ২৮ আগস্ট রাতে পাবনা শহরের রাধানগর মহল্লায় বাসার গেটের সামনে আনন্দ টিভির পাবনা প্রতিনিধি সুবর্না আক্তার নদীকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বুত্তরা। ঘটনার পরদিন বুধবার নিহত সাংবাদিকের মা মজির্না বেগম বাদি হয়ে সুবর্না আক্তার নদীর সাবেক শ্বশুড়-সাবেক স্বামীসহ তিনজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৪-৫ জনকে আসামী করে পাবনা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

পরে নদী হত্যা মামলার প্রধান আসামী তার সাবেক শ্বশুড় আবুল হোসেনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তিনদিনের রিমান্ড শেষে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। তবে এখনও গ্রেপ্তার হয়নি মামলার অন্যতম আসামি নদীর সাবেক স্বামী রাজিব।