সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৬:২০ অপরাহ্ন

সদ্যপ্রাপ্ত শিরোনামঃ
জীবনের শেষ মূহুর্তে প্রিয় রাসূল (সা:) যে কথাটি বলেছিলেন… গাঁজা সেবনের অভিযোগে শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করলো ছাত্রলীগ…. ফেনীতে ব্যাটারী চালিত রিক্সা চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারিকরলেন জেলা ট্রাফিক ইনর্চাজ… ফেনী মডেল থানায় বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি পুলিশ সুপার… ফেনীর ছাগলনাইয়ায় সাঈদ এস্কান্দারের মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত… মহেশপুর ভৈরবা এলাকায় ট্রাকের ধাক্কায় স্কুলছাত্র নিহত… মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা অর্জনের পরিবেশ সৃষ্টিতে এক অনন্য দৃষ্টান্ত “তুমিও পারবে, আমরা আছি তোমার সাথে” বিদ্যালয়ভিত্তিক স্বেচ্ছাস্ববী সংগঠন।… কুমড়াবাড়িয়া ধোপাবিলা গ্রামের হাতুড়ে ডাক্তার মোতালেবের কুকৃত্তি ফাঁস !… ঝিনাইদহে দুর্ঘটনা রোধে পরিবহন চালক ও হেলপারদের প্রশিক্ষন কর্মশালা অনুষ্ঠিত…. ঝিনাইদহের হাট-বাজার, শহর-বন্দর-গ্রামে ঢুকিয়ে দেওয়া হচ্ছে ভারতীয় নিম্নমানের চা-পাতি
দেশে সুষ্ঠু নির্বাচনে জাতিসংঘের সহায়তা কামনা…

দেশে সুষ্ঠু নির্বাচনে জাতিসংঘের সহায়তা কামনা…

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন যাতে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয় সেজন্য জাতিসংঘের সহায়তা চেয়েছে বিএনপি।
বৃহস্পতিবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দফতরে ৩৫ তলায় সংস্থাটির রাজনীতিবিষয়ক সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মিরোস্লাভ জেনকার সঙ্গে বৈঠকে এ সহায়তা চাওয়া হয়। মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল এ বৈঠকে অংশ নেয়। এ সময় তারা বাংলাদেশের নির্বাচন ঘিরে সরকারের নানা তৎপরতার বিষয়ে জাতিসংঘকে অবহিত করেন। এছাড়াও দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারামুক্তি, তার অসুস্থতা, দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনসহ সার্বিক বিষয় বৈঠকে তুলে ধরেন। দেশের সংকটময় পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে জাতিসংঘের পদক্ষেপ আশা করেন বিএনপির প্রতিনিধি দলের নেতারা। এছাড়া বিএনপি ট্রাম্প প্রশাসনের সমর্থন আদায়ের চেষ্টাও করছে বলে জানা গেছে। এলক্ষ্যে দলটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে লবিস্টও নিয়োগ দিয়েছে।
বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টা থেকে এক ঘণ্টার বেশি সময় ধরে বৈঠক হয়। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে দলের সহ-আন্তর্জাতিক সম্পাদক হুমায়ুন কবির ও নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল এবং জাতিসংঘের চারজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গত, জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে নেই। কাজেই বিএনপি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে এ দফায় জাতিসংঘ মহাসচিবের কোনো বৈঠক হচ্ছে না বলে জানা গেছে।
বৈঠক শেষে জাতিসংঘ সদর দফতরের সামনে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘জাতিসংঘের মহাসচিবের আমন্ত্রণে আমরা এখানে এসেছি। বাংলাদেশের আসন্ন নির্বাচন নিয়ে আমাদের মধ্যে কথা হয়েছে। দেশের মানবাধিকার লঙ্ঘন ও বিরোধী দলের ওপর দমন-পীড়নের বিষয়গুলোও জানানো হয়েছে। আমরা কথা বলেছি, তারাও কথা বলেছেন।’ আলোচনা ফসপ্রসূ হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
ঢাকায় ওবায়দুল কাদের বিএনপিকে নালিশ পার্টি বলে উল্লেখ করেছেন- এ সংক্রান্ত প্রশ্ন করা হলে ফখরুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে মন্তব্য করতে চাই না। আপনারা লবিস্ট নিয়োগ দিয়েছেন, তাদের আয়োজনে ওয়াশিংটনে বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে প্রাতঃরাশে যোগ দিচ্ছেন- এ সম্পর্কে জানতে চাইলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, এমন আরও অনেক মিটিং আছে, সেগুলোতেও যোগ দেব। লবিস্ট নিয়োগ সংক্রান্ত প্রশ্নে একটু উষ্মা প্রকাশ করেন কিন্তু সরাসরি কোনো জবাব দেননি ফখরুল ইসলাম।
বিএনপি নেতারা জানিয়েছেন, জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী যোগ দেবেন। সেখানে বাংলাদেশের নির্বাচনসহ বিভিন্ন পরিস্থিতি নিয়ে তাদের আলোচনা হতে পারে। প্রধানমন্ত্রী যাওয়ার আগেই জাতিসংঘকে বাংলাদেশ সম্পর্কে ব্রিফ করা ছিল এ বৈঠকের অন্যতম উদ্দেশ্যে, যাতে সংস্থাটি সব বিষয়ে অবগত থাকে।
বৈঠক সূত্র জানায়, বাংলাদেশের আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে জাতিসংঘের করণীয় আছে বলে মনে করে বিএনপি। এ সংক্রান্ত বক্তব্য উপস্থাপন করেন মির্জা ফখরুল ইসলাম। এ ব্যাপারে জাতিসংঘ অন্যান্য পক্ষের সঙ্গেও কথা বলবে বলে জানিয়েছে বিএনপিকে। বৈঠকে বিএনপি একটি লিখিত বক্তব্য দিয়েছে। এর সঙ্গে বিভিন্ন ইংরেজি দৈনিকের নিউজ এবং গণমাধ্যমে প্রকাশিত ছবি সংবলিত কিছু কাগজপত্র দিয়েছে।
জানা গেছে, নির্বাচনকে ঘিরে বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা, গুম, খুনসহ মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়। জাতিসংঘের অনেক নির্দেশ অমান্য হচ্ছে তা জানানো হয়। বলা হয়েছে, বাংলাদেশে আইনের শাসন নেই। মানবাধিকার পরিস্থিতি কেমন তা জাতিসংঘ খুব ভালোভাবেই অবহিত।
জবাবে জাতিসংঘ জানিয়েছে, মানবাধিকার নিয়ে তাদের যে কমিটি কাজ করে, তাদের রিপোর্টেও বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়টি উঠে এসেছে। এছাড়া পত্রিকায় যেসব খবর প্রকাশিত হচ্ছে, সেসব বিষয়ে খোঁজ নিচ্ছেন তারা।
জানা গেছে, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারাবন্দি থাকার বিষয়টি আলোচনা হয়েছে। এ সময় বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তিনবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। তিনি গুরুতর অসুস্থ, তাকে কারাবন্দি করে রাখা হয়েছে। মিথ্যা ও সাজানো মামলায় তাকে সাজা দেয়া হয়েছে। তার মুক্তি প্রক্রিয়া বিলম্ব করা হচ্ছে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ বিরোধী রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে হয়রানি করার অভিযোগ করেন। এ প্রসঙ্গে সম্প্রতি কোনো ঘটনা ছাড়াই হাজার হাজার নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের এজাহারও দেয়া হয়।
জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে বিএনপি তাদের দাবির পক্ষে জাতিসংঘের পাশাপাশি ট্রাম্প প্রশাসনেরও সমর্থন আদায়ের চেষ্টা করছে। এ লক্ষ্যে বিএনপি যুক্তরাষ্ট্রে লবিস্ট নিয়োগ করেছে। ব্লু স্টার স্ট্র্যাটেজি ও রাসকি পার্টনারস নামের দুটি ফার্মকে এ কাজে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।
পলিটিকোর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আবদুস সাত্তার নাম

অাপনার মতামত লিখুন

দয়া করে সংবাদটি সেয়ার করুন

অামাদের সংবাদ সংক্রান্ত তর্থ্য

সকল প্রকাশিত/সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট ইত্যদি অনলাইনের নানা সূত্র থেকে সংগৃহীত। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ীনয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের এবং প্রকাশিত সূত্রের। অামাদের প্রকাশিত সংবাদে কোন অভিযোগ থাকলে অামাদের জানাতে পারেন।Email:dainiksomoy24@gmail.com


   
© All rights reserved © ২০১৭-২০১৮ দৈনিক সময়. কম
Design & Developed BY দৈনিক সময়.কম