1. skarman0199094@gmail.com : Sk Arman : Sk Arman
  2. alamran777777@gmail.com : স্বদেশ বাংলা : স্বদেশ বাংলা
  3. infomabrur@gmail.com : Md Mabrur : Md Mabrur
  4. alamran2355@gmail.com : স্বদেশ বাংলা : স্বদেশ বাংলা
  5. mijankhan298@gmail.com : স্বদেশ বাংলা : স্বদেশ বাংলা
  6. shafiulislamtanzil@gmail.com : Md Tanzil : Md Tanzil
  7. shamimulislamtanvirrana@gmail.com : Tanvir Islam : Tanvir Islam
  8. mituislam298@gmail.com : সহকারি সম্পাদক মোঃ সফিউল ইসলাম তানজিল : সহকারি সম্পাদক মোঃ সফিউল ইসলাম তানজিল

“আল্লাহ”কে খুশি করতে নিজের শিশু সন্তানকে গলা কেটে খুন গ’র্ভবর্তী মায়ের!

  • প্রকাশিত : ১০:৫৯ pm | বুধবার ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৯৭০ বার পঠিত

স্বদেশ বাংলা:
‘আল্লাহ”কে খুশি করতে নিজের শিশু সন্তানকে গলা কেটে খুন গ’র্ভবর্তী মায়ের!
কেরলের প’লক্কর থেকে এক নি’র্মম ঘটনা সামনে আসছে। সেখানে ৩০ বছর বয়সী এক মাদ্রাসা শিক্ষিকা ‘আল্লাহ”কে খুশি করতে নিজের ৬ বছরের ছেলেকে গলা

কেটে হ’ত্যা করে দেয়। পুলিশ জানায় যে, ওই শিক্ষিকা গর্ভ’বতী। মাদ্রাসা শিক্ষিকা পুলিশকে জানিয়েছেন যে, আল্লাহকে খুশি করতেই তিনি নিজের ০৬ বছরের পুত্র সন্তানকে গলা কেটে খু’ন করেছেন।পুলিশ ওই মহিলা শিক্ষিকাকে গ্রে’ফতার করেছে।নিজের ছেলেকে গলা কেটে খু’ন করার পর

ওই মহিলা শিক্ষিকা নিজেই পুলিশের কাছে গিয়ে আ’ত্মসমর্পণ করেন।এই ঘটনার পর মহিলার প্রতিবেশী আর পরিজনরা শো’কস্তব্ধ হয়ে পড়েছেন। পুলিশ জানায় যে,এই কান্ড ভোর চারটে নাগাদ হয়। শিক্ষিকার

তিনটি ছেলে আছে,আর তিনি রাতে ছোট ছেলের সাথে ঘুমাচ্ছিলেন। বাচ্চাটিকে ভো’ররাতে ঘুম থেকে জাগিয়ে বাথরুমে নিয়ে যান মহিলা।এরপর তার হাত পা বেঁধে দেন তিনি। এরুপ বা’থরুমে নিজের সন্তানকে গলা কেটে খু’ন করেন তিনি। মহিলার স্বামী অন্য

একটি ঘরে তাদের বাকি সন্তানদের সঙ্গে ঘুমাচ্ছিলেন।পলক্কর দক্ষিণ থানায় দায়ের অভিযোগ অনুযায়ী,পথুপল্লীথিরুবের বাসিন্দা শাহিদা তিন সন্তানের মা। নিজের তিন সন্তানের মধ্যে সবথেকে ছো’টটির প্রাণ নেওয়ার পর তিনি নিজেই থানায় ফোন

করে দোষ স্বী’কার করেন ও পুলিশের কাছে আ’ত্মসমর্পণ করেন।মহিলা পুলিশকে জানান যে, আল্লাহর কাছে নিজের ছয় বছরের সন্তানকে কুরবান করেছেন তিনি।প্রতিবেশীরা জানান যে, শাহিদা ঘটনার

একদিন আগেই একজন প্রতিবেশীর কাছ থেকে থানার নম্বর নিয়েছিলেন। পুলিশ ছয় বছরের বাচ্চার মৃ’তদেহ বাথরুম থেকে উদ্ধার করে। পুলিশ জানায় যে, শাহিদা পাশের একটি

মাদ্রাসায় শিক্ষিকার কাজ করেন। আর শাহিদার স্বামী সম্প্রতি আরব দেশ থেকে ভারতে ফিরেছেন। শাহিদার স্বামী সুলেমান ব’র্তমানে পলক্কর শহরে একজন ট্যাক্সি ড্রাইভার হিসেবে কাজ করেন।

এই সংবাদটি শেয়ার করার অনুরোধ রইল

এই বিভাগের আরো সংবাদ পড়ুন এখানে
© All rights reserved © 2020 Sadeshbd
Site Customized By NewsTech.Com
Translate Language »