Take a fresh look at your lifestyle.

বিএনপি নতুন খেলায় মেতেছে: ওবায়দুল কাদের

স্বদেশ বাংলা ডেস্ক:

18

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে ফায়দা নিতে বিএনপি ‘নতুন খেলায়’ মেতেছে। বিএনপি স্বাভাবিক রাজনীতি করতে ব্যর্থ।’তিনি এসব কথা বলেন বুধবার (২৮ আগস্ট) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) শহিদ ডা. মিলন হলে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায়।

‘বিএনপি নেতিবাচক রাজনীতি করে বারবার ব্যর্থ হয়েছে একথা ওবায়দুল কাদের বলেন। দেড় বছর বেগম জিয়া কারাগারে, তাঁর মুক্তির জন্য এই বিএনপি দেড় মিনিটও আন্দোলন করতে পারেনি। এখন তারা ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছে। সর্বশেষ আমরা দেখছি রোহিঙ্গা ইস্যুকে তারা রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে, সরকারকে বেকায়দায় ফেলার জন্য।’ বিএনপির সমালোচনা করে সড়কমন্ত্রী আরও বলেন, ‘একেকবার একেক ইস্যু তাদের।

আন্দোলনে ব্যর্থ, নির্বাচনে ব্যর্থ তারা। কোটা আন্দোলনের ওপর ভর সেখানেও ব্যর্থ। স্কুলের ছেলেমেয়েদের নিরাপদ সড়কের আন্দোলনেও ভর করে তারা ব্যর্থ। অবশেষে রোহিঙ্গা ইস্যুর ওপর তারা ভর করেছে এখন। এখন রোহিঙ্গাদের নিয়ে নানা খেলা খেলছে বিএনপি। বিদেশি কিছু এনজিও ষড়যন্ত্র করছে, মিয়ানমারকে সহযোগিতা করছে পরোক্ষভাবে।’ বিএনপির নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আপন অপরাধের শৃঙ্খলে পড়ে গেছেন, আপন অপরাধের শৃঙ্খলে আপনারা জড়িত হয়ে গেছেন, আবদ্ধ হয়ে গেছেন। ইতিহাস ক্ষমা করবে না।

জনতার আদালত ক্ষমা করবে না। আজকে দিন যতই যাচ্ছে বিএনপি সংকুচিত হয়ে পড়ছে। ততই তারা আপন অপরাধের শৃঙ্খল থেকে নিজেদেরকে বিযুক্ত করতে পারছে না। ক্রমেই তারা জনবিচ্ছিন্ন হচ্ছে। সে কারণে রাজনীতিতে ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নেয়া ছাড়া বিএনপির অন্য কোনও পথ এখন আর খোলা নেই।’ সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘কেউ কেউ বলছেন, জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটেনি ১০ম জাতীয় নির্বাচনে।

১০ম জাতীয় নির্বাচন বিএনপি বর্জন করেছে। শেখ হাসিনা ইতিহাসের অলঙ্ঘনীয় দেয়াল উঁচু করে রাখার পরও গণভবনে আপনাদেরকে (বিএনপি নেতৃবৃন্দ) আমন্ত্রণ করেছিলেন। ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে গালিগালাজের ভাষা ব্যবহার করেছেন। নির্বাচনে আপনারা আসেননি সেটা কি আমাদের দোষ? এই নির্বাচনে বাংলাদেশে ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের গ্র্যান্ড কনফারেন্স হয়েছে।

বিএসএমএমইউ’তে উপাচার্য অধ্যাপক ড. কনক কান্তি বড়ুয়ার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন- স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) সভাপতি অধ্যাপক ডা. ইকবাল আর্সালান,বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএম) সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, বিএম-এর মহাসচিব ডা. মো: ইহতেশামুল হক চৌধুরী ও স্বাচিপ-এর মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এম এ আজিজ প্রমুখ।

এই বিভাগের আরও সংবাদ